Home    Source

 
 Home
 Subject Index
 Bukhari Shareef
 Muslim Shareef
 Abu Dawud
 Malik Muwatta
Google
See Arabic as Image 
73) সূরা মুযযামমিল (মক্কায় অবতীর্ণ), আয়াত সংখ্যা 20
 بِسْمِ اللّهِ الرَّحْمـَنِ الرَّحِيمِ
 শুরু করছি আল্লাহর নামে যিনি পরম করুণাময়, অতি দয়ালু।
  Ayahs:   | 1-15 | 16-20 |
 
  يَا أَيُّهَا الْمُزَّمِّلُ  (1
হে বস্ত্রাবৃত!  
O thou folded in garments!  
 
  قُمِ اللَّيْلَ إِلَّا قَلِيلًا  (2
রাত্রিতে দন্ডায়মান হোন কিছু অংশ বাদ দিয়ে;  
Stand (to prayer) by night, but not all night,-  
 
  نِصْفَهُ أَوِ انقُصْ مِنْهُ قَلِيلًا  (3
অর্ধরাত্রি অথবা তদপেক্ষা কিছু কম  
Half of it,- or a little less,  
 
  أَوْ زِدْ عَلَيْهِ وَرَتِّلِ الْقُرْآنَ تَرْتِيلًا  (4
অথবা তদপেক্ষা বেশী এবং কোরআন আবৃত্তি করুন সুবিন্যস্ত ভাবে ও স্পষ্টভাবে।  
Or a little more; and recite the Qur'an in slow, measured rhythmic tones.  
 
  إِنَّا سَنُلْقِي عَلَيْكَ قَوْلًا ثَقِيلًا  (5
আমি আপনার প্রতি অবতীর্ণ করেছি গুরুত্বপূর্ণ বাণী।  
Soon shall We send down to thee a weighty Message.  
 
  إِنَّ نَاشِئَةَ اللَّيْلِ هِيَ أَشَدُّ وَطْءًا وَأَقْوَمُ قِيلًا  (6
নিশ্চয় এবাদতের জন্যে রাত্রিতে উঠা প্রবৃত্তি দলনে সহায়ক এবং স্পষ্ট উচ্চারণের অনুকূল।  
Truly the rising by night is most potent for governing (the soul), and most suitable for (framing) the Word (of Prayer and Praise).  
 
  إِنَّ لَكَ فِي اَلنَّهَارِ سَبْحًا طَوِيلًا  (7
নিশ্চয় দিবাভাগে রয়েছে আপনার দীর্ঘ কর্মব্যস্ততা।  
True, there is for thee by day prolonged occupation with ordinary duties:  
 
  وَاذْكُرِ اسْمَ رَبِّكَ وَتَبَتَّلْ إِلَيْهِ تَبْتِيلًا  (8
আপনি আপনার পালনকর্তার নাম স্মরণ করুন এবং একাগ্রচিত্তে তাতে মগ্ন হোন।  
But keep in remembrance the name of thy Lord and devote thyself to Him whole-heartedly.  
 
  رَبُّ الْمَشْرِقِ وَالْمَغْرِبِ لَا إِلَهَ إِلَّا هُوَ فَاتَّخِذْهُ وَكِيلًا  (9
তিনি পূর্ব ও পশ্চিমের অধিকর্তা। তিনি ব্যতীত কোন উপাস্য নেই। অতএব, তাঁকেই গ্রহণ করুন কর্মবিধায়করূপে।  
(He is) Lord of the East and the West: there is no god but He: take Him therefore for (thy) Disposer of Affairs.  
 
  وَاصْبِرْ عَلَى مَا يَقُولُونَ وَاهْجُرْهُمْ هَجْرًا جَمِيلًا  (10
কাফেররা যা বলে, তজ্জন্যে আপনি সবর করুন এবং সুন্দরভাবে তাদেরকে পরিহার করে চলুন।  
And have patience with what they say, and leave them with noble (dignity).  
 
  وَذَرْنِي وَالْمُكَذِّبِينَ أُولِي النَّعْمَةِ وَمَهِّلْهُمْ قَلِيلًا  (11
বিত্ত-বৈভবের অধিকারী মিথ্যারোপকারীদেরকে আমার হাতে ছেড়ে দিন এবং তাদেরকে কিছু অবকাশ দিন।  
And leave Me (alone to deal with) those in possession of the good things of life, who (yet) deny the Truth; and bear with them for a little while.  
 
  إِنَّ لَدَيْنَا أَنكَالًا وَجَحِيمًا  (12
নিশ্চয় আমার কাছে আছে শিকল ও অগ্নিকুন্ড।  
With Us are Fetters (to bind them), and a Fire (to burn them),  
 
  وَطَعَامًا ذَا غُصَّةٍ وَعَذَابًا أَلِيمًا  (13
গলগ্রহ হয়ে যায় এমন খাদ্য এবং যন্ত্রণাদায়ক শাস্তি।  
And a Food that chokes, and a Penalty Grievous.  
 
  يَوْمَ تَرْجُفُ الْأَرْضُ وَالْجِبَالُ وَكَانَتِ الْجِبَالُ كَثِيبًا مَّهِيلًا  (14
যেদিন পৃথিবী পর্বতমালা প্রকম্পিত হবে এবং পর্বতসমূহ হয়ে যাবে বহমান বালুকাস্তুপ।  
One Day the earth and the mountains will be in violent commotion. And the mountains will be as a heap of sand poured out and flowing down.  
 
  إِنَّا أَرْسَلْنَا إِلَيْكُمْ رَسُولًا شَاهِدًا عَلَيْكُمْ كَمَا أَرْسَلْنَا إِلَى فِرْعَوْنَ رَسُولًا  (15
আমি তোমাদের কাছে একজন রসূলকে তোমাদের জন্যে সাক্ষী করে প্রেরণ করেছি, যেমন প্রেরণ করেছিলাম ফেরাউনের কাছে একজন রসূল।  
We have sent to you, (O men!) an apostle, to be a witness concerning you, even as We sent an apostle to Pharaoh.  
 
  Ayahs:   | 1-15 | 16-20 |